দণ্ডিত শিশুদের মুক্তির আদেশের খোঁজ জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট

ভ্রাম্যমাণ আদালতে দণ্ডিত শিশুদের মুক্তি ও জামিনসংক্রান্ত আদেশের কপি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে পৌঁছেছে কি না, তা জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। হাইকোর্টের বেঞ্চ কর্মকর্তাকে রেজিস্ট্রার জেনারেলের দপ্তরে খোঁজ নিয়ে এ বিষয় জানাতে বলা হয়েছে।

বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ সোমবার এই তথ্য জানাতে বলেন।

‘আইনে মানা, তবু ১২১ শিশুর দণ্ড’ শিরোনামে গত ৩১ অক্টোবর প্রথম আলোতে একটি প্রতিবেদন ছাপা হয়। প্রতিবেদনটি এদিনই আদালতের নজরে আনেন চিলড্রেন’স চ্যারিটি বাংলাদেশ ফাউন্ডেশনের (সিসিবি ফাউন্ডেশন) চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আবদুল হালিম। ভ্রাম্যমাণ আদালতে দণ্ডিত হয়ে গাজীপুরের টঙ্গী ও যশোরের পুলেরহাটের কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে থাকা ১২ বছরের কম বয়সী শিশুদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। টঙ্গী ও যশোর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রের তত্ত্বাবধায়কদের প্রতি এ নির্দেশ দেওয়া হয়। একই সঙ্গে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দণ্ডিত হয়ে শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে থাকা ১২ বছরের বেশি বয়সী থেকে ১৮ বছর পর্যন্ত বয়সী শিশুদের ছয় মাসের জামিন দেন হাইকোর্ট।

আজ সকালে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট বেঞ্চের কার্যক্রম শুরু হলে আদালত আইনজীবী আবদুল হালিমের কাছে শিশুদের মুক্তি ও জামিনসংক্রান্ত আদেশের অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চান।

একপর্যায়ে হাইকোর্ট বলেন, আদালতের আদেশ পৌঁছেনি। অবশ্যই যেন পৌঁছে। যত দূর শুনেছি, ডেসপাস পর্যন্ত গেছে । আদালত সংশ্লিষ্ট বেঞ্চ কর্মকর্তাকে ডেকে এ বিষয়ে খোঁজ নিতে বলেন।

আদালত বলেন, আজ বেলা দুইটার মধ্যে অবশ্যই যেন আদেশ যায়।

Author: gm mukul

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *